আশঙ্কা মাথায় নিয়ে ন্যু-ক্যাম্পে খেলতে যেতে চাইছে না নাপোলি

  • Whatsapp

মিলান: আফটার ওয়েভে আরও একবার স্পেনে করোনা সংক্রামিত হচ্ছে উল্লেখযোগ্যভাবে। এমতাবস্থায় আগামী ৮ অগস্ট চ্যাম্পিয়ন্স লিগের রাউন্ড ১৬-র দ্বিতীয় লেগে ন্যু-ক্যাম্পে বার্সেলোনার মুখোমুখি নাপোলি। কিন্তু স্পেন থেকে খারাপ সব খবর একে একে কানে পৌঁছতেই মেসিদের মাঠে গিয়ে খেলার ব্যাপারে বেঁকে বসল ইতালির ক্লাবটি। আশঙ্কা মাথায় নিয়ে কোনওভাবেই কাতালোনিয়া প্রদেশে খেলতে যাবে না তাঁর দল। জানিয়ে দিয়েছেন নাপোলি প্রেসিডেন্ট অরিলিও দি লরিয়েন্তিস।

জুলাইয়ের শুরুতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচগুলি পর্তুগালের রাজধানী শহর লিসবনে আয়োজন করার কথা ঘোষণা করেছিল উয়েফা। তবে রাউন্ড অফ ১৬-র বাকি ম্যাচগুলি পূর্ব নির্ধারিত ভেন্যু অনুযায়ীই হবে বলে জানিয়েছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের গভর্নিং বডি। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে স্পেনে নতুন করে সংক্রমণের খবর আসা সত্ত্বেও কোনও হেলদোল নেই উয়েফার। নাপোলি প্রেসিডেন্টের অভিযোগ তেমনই। তাঁর কথায়, ‘স্পেন থেকে ভুরি-ভুরি খারাপ খবর কানে আসছে। অথচ তাঁরা এমন করছে যেন কিছুই হয়নি। এটাকে কী বলা যায়?’

একইসঙ্গে নাপোলি প্রেসিডেন্ট উয়েফাকে জানিয়ে রেখেছেন লিসবন, জার্মানি কিংবা জেনেভাতে যদি ওই ম্যাচ ব্যবস্থা করা হয় তাহলে তাঁদের খেলতে কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু বার্সেলোনা নৈব নৈব চ। লরিয়েন্তিস বলেছেন, ‘ওরা যদি রাউন্ড ১৬-র ম্যাচ খেলতে পর্তুগাল কিংবা জার্মানিতে ডাকে তাহলে বিশেষ সমস্যা নেই। আমার মাথায় ঢুকছে না এমন একটা আশঙ্কাজনক পরিস্থিতিতে বার্সেলোনায় ওরা কীভাবে আমাদের খেলার জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছে।’

অন্যদিকে বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষও উয়েফার সঙ্গে তাল মিলিয়ে অভয় প্রদান করছে নাপোলিকে। তাঁদের কথায়, ফাঁকা গ্যালারিতে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ায় সেই অর্থে সংক্রমণের কোনও আশঙ্কাই নেই। উল্লেখ্য, করোনার জেরে বিশ্ব ফুটবল কয়েকমাসের জন্য স্থগিত থাকার আগে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ১৬-র প্রথম লেগের ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল নাপোলি ও বার্সেলোনা। নাপোলির ঘরের মাঠে ১-১ গোলে শেষ হয়েছিল সেই ম্যাচ। তাই কোয়ার্টারে উন্নীত হওয়ার লক্ষ্যে আগামী ৮ অগস্টের ম্যাচটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এখন দেখার গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে ভেন্যু নিয়ে নাপোলির যুক্তিপূর্ণ দাবি কতটা গ্রহণযোগ্য হয় উয়েফার কাছে।

প্রশ্ন অনেক: তৃতীয় পর্ব

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *